September 23, 2021
Xiaomi Mi 10T And 10T Pro

শাওমির নতুন দুটি দুর্দান্ত স্মার্টফোন Xiaomi Mi 10T And 10T Pro | Bangla Review

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই। আশা করি সবাই ভালো আছেন। হ্যা বন্ধুরা আমি ও ভালো আছি আপনাদের দোয়ায়। তো বন্ধুরা আজকে আমরা যে বিষয়টি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি তা আপনারা  টাইটেল দেখেই বুঝতে পারছেন। বিশ্ব বাজারে ইতোমধ্যে চলে আসা শাওমির এমআই টি সিরিজের নতুন দুটি আপকামিং ফাইভ জি স্মার্টফোন – Xiaomi Mi 10T And 10T Pro এমআই টেন টি  এবং এমআই টেন টি প্রো (Mi 10T Pro 5G)। শাওমি ফোন বাজারে আসার পর থেকে একের পর এক চমক দেখিয়েই আজকে তারা বিশ্বদের কাতারে নাম লিখিয়েছে। বর্তমান বাজারে শাওমি মানেই নতুন কিছু তাই তো দর্শকরা অধীর আগ্রহ নিয়ে বসে থাকে। তো এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।

শাওমির এবার নতুন দুটি আপকামিং ফাইভ জি স্মার্টফোন – এমআই টেন টি (Mi 10T 5G) এবং এমআই টেন টি প্রো (Mi 10T Pro 5G) দর্শকদের কতটুকু চাহিদা মেটাতে পারে সেটাই এখন দেখার বিষয়। এখন নতুন এই মডেলের ফোন দুটিতে কি কি বাড়তি চমক আর অভিনব সুবিধা থাকছে, সেটা নিয়েই কথা বলবো।

মোবাইল হ্যান্ড সেটের জগতে xiaomi বর্তমানে অন্যতম এক নাম। সারাবিশ্বে বিশেষ করে আমাদের উপমহাদেশে এখন Xiaomi কদর অন্য যেকোনো ব্র্যান্ডের তুলনায় অনেক ক্ষেত্রেই বেশি। হবেই না বা কেন কারণ Xiaomi প্রতিনিয়ত ইউজারদের পছন্দ আর চাহিদার কথা মাথায় রেখে বাজারে আনছে নিত্য নতুন ফিউচার নিয়ে একের পর এক স্মার্টফোন।
সেই ধারাবাহিকতায় খুব শীঘ্রই আসছে Xiaomi Mi T সিরিজের আরো দুইটি মডেল। খুব শীঘ্রই এদেশের বাজারেও পাওয়া যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

 Xiaomi Mi 10T And 10T Pro ফোন দুটির বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণে।

Xiaomi Mi 10T And 10T Pro

ডিজাইনঃ

Xiaomi T মডেলের সেটগুলোকে MI 10 মডেলের তুলনায় আরো সাশ্রয় মুল্যের বিকল্প হিসাবে ভাবা হচ্ছে তাই এখানে জানার বিষয় হলো এদের পারফরম্যান্স কেমন সেটাই।
প্রথম নজরে Xiaomi Mi 10T And 10T Pro স্মার্টফোন দুটিকে কার্যত একি রকম মনে হলেও বেশ কটি পার্থক্য রয়েছে। দামে পার্থক্য তো আছেই কয়েকটি প্রযুক্তি গত ভিন্নতাও রয়েছে এদের মধ্যে।
যেমন :Mi10T Pro এর ওজন ২১৮ গ্রাম তার থেকে Mi 10T এর ওজন ২ গ্রাম কম অর্থাৎ ২১৬ গ্রাম। ফোন দুটি পাওয়া যাবে প্রধানত Cosmic Black আর Lunar Silver এই দুটি রঙে তবে Aurora blue রং একটি কেবল Mi 10T Pro এর ২৫৬জিবি স্টোরেজ মডেলের বেলায় পাওয়া যাবে।

ক্যামেরাঃ

ওজন কালার ভেরিয়েশন আর Ram এর স্টোরেজ ছাড়াও প্রধান পার্থক্য আসলে শুইস্পষ্ট ফোন দুটির ক্যামেরা কনফিগারেশনে বিশেষ করে ইউআর ক্যামেরা সিস্টেমে। প্রথম গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্যটি মূল ক্যামেরার সেন্সরের সাথে দুটো ফোনের পিছনে রয়েছে 13 MP ও 5MP এডিশনাল ক্যামেরা ইউনিট সহ 64Mp এবং 108Mp মেগাপিক্সেল ফেল্যাক্সি ট্রিপল ক্যামেরা।

10T 64Mp High রেজিলেশন লেন্স আর 10T Pro 108Mp আলট্রা হাই রেজিলেশন লেন্স নিয়ে গঠিত। 9T মডেল গুলোর মতো Mi 10T Pro সেটটিও ক্যামেরা কেন্দ্রীক। এটি OIS তথা Optical Image Stabilization প্রযুক্তি ব্যাবহারকারীদের দূর্দান্ত ছবি তোলার অভিজ্ঞতা দেবে ছবি বেল্যান্ড অথবা এজ লাইন থেকে আনডিফাইন্ড হয়ে পড়ার বিষয়ে ভোগাবেনা। Pro মডেলটি ব্যবহার কারীদের থার্টি ক্স ডিজিটাল zoom যা 10T এর ক্ষেত্রে 10 ক্স Zoom পাশাপাশি 7P লেন্স এবং OIS উপভোগ করার সুবিধা দেবে। কোনো টেলিফোটো ক্যামেরা না থাকলেও 108Mp মেগাপিক্সেল থেকে ক্রপ করে Zoom বাড়ানো যাবে। প্রধান ক্যামেরাটি 25Mp এর ফাইনাল ইমেজ তৈরী করতে পিক্সেল বিনিং ব্যবহার করে। আর অন্যান Xiaomi ফ্লাক্সি ফোনের মতো আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরাটিতে অটো ফোক্সাস নেই।

ডিসপ্লেঃ

উভয় ফোনের এডিশনাল সানলাইট সেন্সিভিটি 144HZ রিফ্রেশ রেট প্যানেলের 6.67 ইঞ্চি ডিসপ্লে আপনার নজর কাটতে বাধ্য। এছাড়া ভিডিও রেকোডিং ও প্লে ব্রেক জন্য ডুয়েল ভিডিও মুড্ এবং 8kভিডিও রেকোডিং ফিউচার রয়েছে। ভিজুয়াল কোলেটি এক কোথায় অসাধারণ প্যানেল টি বেশ উজ্জ্বল আর দুর্দান্ত কন্টাস্ট দিতে সক্ষম এখন পযন্ত শাওমির দ্রুত তম স্ক্রীন ছিল ব্ল্যাক সার্প 3S 120HZ রিফ্রেশ প্রেড সম্পর্ণ তবে এখন 144HZ রিফ্রেশ প্রেড এর ফ্লাড বা আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে এবং Mi 10T Pro বাঁকানো ডিসপ্লে থেকে ভিন্ন হওয়ায় যে কারো পছন্দ হবে 10T Pro.

আরও পড়ুনঃ iPhone 12 Series Bangla Review । আইফোন ১২ সিরিজের ফোনগুলো কেমন?

Xiaomi Mi 10T And 10T Pro

হার্ডওয়্যারঃ

দুটি ফাইভ জি ফোনেই থাকছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 865 চিপস সেট। ফোনের স্টোরেজ ও যথেষ্ট ভালো এক্ষেত্রে Mi 10T Pro 5G তে 8GB LPDDR5  Ram রয়েছে সঙ্গে থাকছে 256GB ufs 3.21স্টোরেজ।

ব্যাটারিঃ

Xiaomi Mi 10T And 10T Pro ফোন গুলোর ব্যাটারি ব্রেকাপ ও মন্দ নয় ফাস্ট চার্জিং এর পাশাপাশি এই ফোনের 5000mAh ব্যাটারি আপনাকে হতাশ করবে না। তবে এতে কোনো ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধা নেই।

এবার আশা যাক দামের প্রসঙ্গে এক্ষেত্রে 6GB Ram এবং 128GB মডেলের Mi 10T 5G সম্ভাব্য দাম হতে পারে ৪৫,০০০ হাজার থেকে ৪৮,০০০ এর মধ্যে এবং 8GB Ram ও128GB মডেলের মূল্য ৫০,০০০ হাজারেও উপরে। অন্য দিকে 8GB ও128GB মডেলের Mi 10T Pro 5G আনুমানিক দাম হতে পারে ৫০,০০০ হাজারের উপরের থেকে ৫৫,০০০ হাজার এর মধ্যে। আর 8GB Ram 256GB মডেলটি সম্ভাব্য মূল্য হতে পারে প্রায় ষাট হাজার টাকার কাছাকছি। তবে এগুলো অনুমান নির্ণয় আনঅফিসিয়াল প্রাইস বাজারে আসার পর তা কম বেশি হতেও পারে। মূলত হাই রেজিলেশন ক্যামেরা এবং বিশাল স্টোরেজ পারফর্মেন্স এসব ক্ষেত্রে ক্রেতা ব্যবহার কারীদের দৃষ্টি আর্কষণ করবে বলেই আশা প্রকাশ করছে ফোনটির প্রস্তুত কারীর প্রতিষ্ঠান আর প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের মতে বর্তমান বাজারে Samsung Galaxy S21 FE এবং 1 plus 8t কে টিক্কা দিতে পারে Xiaomi নতুন এই স্মার্ট ফোন দুটি।

তবে বন্ধুরা আমরা শুধু  আপনারদের এতটুকুই জানাতে চাই যে বর্তমান বাজারে এরকম ফোন প্রথম আসলো যা টেক বিশ্বে এই প্রথম। কারণ এই ফোনে থাকছে আপনার চাহিদা থেকেও ব্যাপক সুবিধা। তাছাড়া আপনারাই জানেন যে শাওমি তাদের কাজ দিয়েই সারা বিশ্বে রাজ্ করছে হয়ত এবারও করবে। তো দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কি হয়। আর যদি আপনাদের এই ফোন সম্পর্কে আরো জানতে চান তাহলে অবশ্যই আপনি Google সার্চ করে জানতে পারেন। ওখানে আপনি এই ফোনের সম্পূর্ণ তথ্য জানতে পারবেন।

আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন ( Flashfilex.com ) এর সাথে । যুক্ত হতে – এখানে ক্লিক করুন

যদি কোনো ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ আপনাকে আর্টিকেলটি পরার জন্য ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন বিদায় নিচ্ছি আজকের মত আল্লাহ্‌ হাফেজ।

এই ছিল আমাদের আজকের Xiaomi Mi 10T And 10T Pro সিরিজের  ফোন নিয়ে আয়োজন আশা করি আপনাদের ভালো লেগেছে। এ রকম আরও ভালো কিছু পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। আর এতক্ষন সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। সেই সাথে আমাদের কন্টেন্ট যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই লাইক ,কমেন্ট এবং শেয়ার করতে ভুলবেন না। আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.