September 21, 2021
Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi

Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi কেমন হবে জানুন!!

Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi কেমন হবে জানুন!!

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা। কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভালো আছেন। হ্যা আমি ও আপনাদের দোয়ায় ভালো আছি। প্রযুক্তির উৎকর্ষতায় আমরা আমাদের হাতে অনেক ধরণের নতুন নতুন ডিভাইস এবং নতুন নতুন প্রযুক্তির সাথে সম্পর্ক যুক্ত হয়েছি। যা কি না আমাদের জীবনকে অনেক সহজ এবং দূরত্ব গামী করেছে,এবং সময় বাঁচিয়ে মানুষের জীবনকে সুন্দর এবং সফল করে তুলেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় wifi পরবর্তী প্রযুক্তি আছে Lifi .হ্যা বন্ধুরা আজকের পোস্ট Lifi নিয়ে। আপনারা অনেকেই হয়তো wifi সম্পর্কে শুনেছেন বা জেনেছেন বা ব্যবহার করেছেন। যেটা আমরা রাউটারের মাধ্যমে নেট কানেকশন করে থাকি এবং ডাটা আদান প্রদান করে থাকি। যারা স্মার্ট ফোন ব্যবহার করেন অবশ্যই তাদের বাড়িতে হয়তো বা wifi বা রাউটার জাতীয় ডিভাইস রয়েছে। এবং সেটার মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন। তো ইনটারনেট ব্যবহার করার নতুন প্রযুক্তিটা কি? সেটা নিয়েই আজকে কথা বলবো।

Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi

আপনারা হয়তো wifi এর পরবর্তীর প্রযুক্তির সম্পর্কে ধারণা রেখেছেন। কিংবা wifi পরবর্তী প্রযুক্তি কি আসছে সে সম্পর্কে হয়তো বা ধারণা রয়েছে। তো এরই ধারাবাহিকতায় আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি। wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi নিয়ে। হ্যা বন্ধুরা ঠিকই শুনেছেন Lifi .এই Lifi প্রযুক্তিটি কি এবং কিভাবে কাজ করে এবং এর ব্যবহার কবে থেকে শুরু যাচ্ছে কিংবা এর ব্যবহারের অপকারিতা কি? আসলে জিনিসটা কি সেটা নিয়েই আজকে পোস্ট লেখা হচ্ছে।তো চলুন কিভাবে Lifi প্রযুক্তি ব্যবহার করা যাবে।

লাইফাই (Lifi)

এখানে অনেকেই আছেন যারা হয়তো Lifi সম্পর্ক নিয়ে অবগত না। কাজেই প্রথমে আমি Lifi প্রযুক্তি নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করতে যাচ্ছি আশা করি সবাই মনোযোগ দিয়ে পোস্টটা পড়বেন। Lifi এর পুরো নাম লাইট ফিডিলিটি এই প্রযুক্তিটি আবিষ্কার করেছেন প্রফেসর হারাল শোন্।

২০১১ সালে তিনি Lifi এর মূলমন্ত্র জনগণের কাছে প্রকাশ করেন এবং তিনি দেখিয়েছেন কিভাবে আপনি লাইটের সাহায্যে যোগাযোগ ইস্থাপন করতে পারবেন। যাই হোক তারপর তিনি এই প্রযুক্তি নিয়ে আরো বিস্তারিত গবেষণা চালিয়ে যেতে থাকেন। এবং মোটামুটি সাত মাস আগে এই প্রযুক্তিটির পরীক্ষা করেন এবং পরীক্ষার ফলাফলকে Lifi কে wifi এর তুলনায় বেশি দূরত্ব গামী দেখতে পাওয়া গিয়েছে।

Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi

আসলে এই প্রযুক্তিটি ভিএলসি বা ভিসিবল লাইট কমেনেকেশন দাড়ানোর ওপর কাজ করে। এখন এই ভিএলসি কি দেখুন আপনি যদি একটি Led বাল্বকে কনস্ট্রান্ড ইনপুট পাওয়ার দেন তবে আপনি এর আউটপুট কনস্ট্রান্ড দেখতে পাবেন। যদি আপনি ইনপুট পাওয়ারের কিসু পরিবর্তন করে দেন তবে আপনি অউটপুট এর পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

আপনি যত দূরত্ব ইনপুট পরিবর্তন করবেন আপনি আউটপুট ও ততো দূরত্ব পরিবর্তন দেখতে পারবেন। এবং এই ধারণার মাধ্যমে আপনি এক ধরণের যোগাযোগ ইস্থাপন করতে পারবেন। এখনো বেপারটি পুরোপুরি বুঝেননি তো?আচ্ছা আরো উদহারণ দিচ্ছি। এক বার ভাবুন টিভি আর রিমোটের কথা।

আসলে টিভির রিমোটের সামনে একটা ইনফারেড বাল্ব লাগানো থাকে এবং যখন আপনি এই রিমোটকে নির্দিষ্ট কোনো বাটনে চাপ দেন তখনি বাল্ব নির্দিষ্ট ভঙ্গিতে আলো জ্বলে উঠে। এবার আপনার টিভিতে থাকা সেন্সর সেই ভঙ্গি অনুধাবন করে তার কাজ সম্পর্ণ করে।মনে করুন টিভির চ্যানেল পরিবতনের জন্য রিমোটের বাল্বটি দুইবার ভিবভাব করে। তাহলে যখন আপনি রিমোটে চ্যানেল পরিবর্তন করার জন্য বাটনে চাপ দেন তখন বাল্বটি দুইবার ভিববিব করে এবং টিভিতে থাকা সেন্সর তা গ্রহণ করে।

আপনার টিভিতে আগে থেকেই প্রোগ্রাম করা আছে যে দুইবার ভিববিব গ্রহণ করার পর চ্যানেল পরিবর্তন হবে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।Lifi প্রযুক্তির মূল মন্তটি অনেকটা এরকম কিন্তু টিভির রিমোটের মতো। Lifi এর একটি বাল্ব না থেকে অনেক গুলো বাল্ব থাকে যাতে আপনি অনেক দ্রুত ডাটা আদান প্রদান এবং একই সাথে অনেক ব্যবহার কারিতা ব্যবহার করতে পারেন।আসলে ভিএলসি হলো এই প্রযুক্তির পরিচালনা করার সাধারণ মাধ্যম।

কিন্তু এই প্রযুক্তি আপনাকে আরো অনেক কিছু দিতে সক্ষম।আমরা যে সাধারণ বাল্ব অফিসে কিংবা বাড়িতে ব্যবহার করে থাকি তা শুধু LED এর পরিবর্তন করে এবং এক প্রকার ডিভাইস লাগিয়ে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবো। বাসার সাদ থেকে আলো আসার সাথে সাথে আপনি ইন্টারনেট ও ব্যবহার করতে পারবেন। তাও আবার অনেক দূরত গতিতে তো এই ছিল সাধারণ প্রযুক্তির ধারণা। এবং এটি কিভাবে কাজ করে তার প্রসঙ্গ।

Lifi প্রযুক্তির সুবিধা সমূহ :

এই প্রযুক্তির সুবিধা নিয়ে কথা বলতে গেলে প্রথমেই যা বলতে হয় তা হলো গতি। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনি ১০০ জিপিএস পর্যন্ত পেতে পারেন এবং এটি একদম পরীক্ষিত হয়ে গেছে। তাছাড়া Wifi এর তুলনায় Lifi এর ফিকুয়েন্সি দশ হাজার গুন্ বেশি। Lifi ফিকুয়েন্সি wifi এর তুলনায় অনেক বেশি হওয়াতে এটি এক সাথে অনেক ব্যবহার কারী নিয়ন্ত করার ক্ষমতা রাখে। এর মানে হলো ব্যবহার কারী বৃদ্ধি পেলে ও এর মধ্যে সংযোগের ত্রুটি দেখতে পাবেন না।

আমরা যদি wifi নিয়ে কথা বলি তাহলে দেখতে পাবেন যে কোনো ব্যবহার কারী যদি বেশি ব্রেন্ড উইড ব্যবহার করে তাহলে দেখতে পাবেন যে অন্য ব্যবহার কারীদের সংযোক দৃঢ় গতি সম্পন্ন হতে পারে।Wifi বা Wearless এর যে সিগন্যাল তা আপনার দেয়াল ভেদ করে যেতে পারে। তার ফলে আপনি যখন Wifi ব্যবহার করেন তার সিগন্যাল আপনার প্রতিবেশীরাও পেয়ে থাকে।

আরও পড়ুনঃ আগামী বছর থেকেই বন্ধ হতে পারে অবৈধ মোবাইল ফোন? – আপনার যা জানা জরুরি

আর Lifi যেহুত লাইট টেকনোলজিতে চলে তাই সিগন্যাল আপনার ঘরের দেয়াল ভেদ করে কোথাও যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। কারণ আমরা জানি আলো গণ বস্তূ ভেদ করতে পারে না। তাই আপনি ঘরে বসে বিন্দাস এই প্রযুক্তি দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন। আর কারো বাপেরও ক্ষমতা নেই যে আপনার সিগনালকে শনাক্ত করার।wearless সিগন্যাল আসোলে চওড়া হয়।

অর্থাৎ আপনি যখন Wifi রাউডার চালু করেন তখন এই সিগন্যাল চারিদিকে সমান ভাবে ছড়িয়ে পরে। এখন যদি সেই সিগন্যাল আপনার দিকে না আসে তবে সেটা বিথা কেননা যতটা সিগন্যাল আপনার দিকে আসবে ততটা সিগন্যাল ও চারিদিকে ছড়াবে।

কিন্তু Lifi যেহুত আলো তাই আপনি এটাকে আপনার পছন্দর দিকে টার্গেট করতে পারেন। ফলে আপনি সর্বাদিক সিগন্যাল পেতে পারেন এবং আপনার ডাটার ঘনত্ত বেড়ে যাবে আপনি সর্বাদিক সিগনালে উচ্চ গতিতে ডাটা আদান প্রদান করতে পারবেন।

আমরা এখন জানবো যে এই প্রযুক্তি কোথায় কোথায় ব্যবহার করা যায় :

আমরা যেমন wifi ব্যবহার করার জন্য wifi ডিভাইস ব্যবহার করি। তেমনি Lifi ব্যবহার করার জন্য আমাদের একটি ডিভাইস দরকার তাই না। এই প্রযুক্তি আলো দিয়ে চলে তাই আপনার গোটা কলোনী বা পাড়া বা রাস্তাকে Lifi Hotspot এ পরিনিত করতে রাস্তার লেমপোস্ট গুলোই যথেষ্ট।

এটি আপনি পাব্লিকেলি আলোর সাথে অনেক কম খরচেই নিম্নত Hotspot দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। এমনকি রাতের শহরের বিভিন্ন ঝিকমিক বাতি দোকানের লাইট বক্স এটিকেও আপনি hotspot এ পরিণত করতে পারবেন। জীবন আরো কতটা সহজ হয়ে যাবে ধারণা করতে পারছেন তো।

বর্তমানে যে সকল আধুনিক ডিভিস আছে যেমন, স্মার্ট ফোন লেপটপ টিভি এগুলোকেও আপনি অনেক সহজে একে অপরের সাথে এই প্রযুক্তি সংযুক্ত করতে পারবেন। একে অন্যের সাথে ডাটা আদান প্রদান এবং পাশাপাশি সকল প্রকার সংযোক স্থাপন সম্ভব হবে এই প্রযুক্তির মাধ্যমে এবং উচ্চ গতি সম্পর্ণ ডাটা আদান প্রদান এর ব্যবস্তা তো থাকছেই।

এই প্রযুক্তি আপনি যেকোনো পরিবেশে ব্যবহার করতে পারবেন। কিছু কিছু পরিবেশ যেমন যেখানে মাইন্স পোতা আছে বা এর্ট্র কেমিক্যাল প্লান্ট যেখানে wearless সিগন্যাল কখনো কখনো ক্ষতি কর হতে পারে আপনি সেখানেও Lifi ব্যবহার করতে পারবেন। এমনকি এই প্রযুক্তি আপনি বিমানেও ব্যবহার করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ ফেসবুকের দিন কি শেষ? – Facebook vs Apple War!

বিমানে লক্ষ্য করলে দেখবেন যাত্রীর আসনের ওপরে বাল্ব বা লাইট লাগানো থাকে সেখান থেকেই আপনি Lifi ব্যবহার করতে পারবেন। সব চাইতে ভালো কথা হলো পানির নিচেও এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবেন আপনারা জানেন যে পানির নিচে Wearless সিগন্যাল কাজ করে না কিন্তু আলো তো অবশ্যই দেখা যাই।

আপনারা যে আজ কাল গাড়িতে অনেক LED বাল্ব থাকে আর আপনি সেই বাল্বের সহযোগিতায় গাড়িতে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারবেন। এবং স্মুথ গাড়িতে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে একে অন্য গাড়ির সাথে সম্পর্ক স্থাপন ও করতে পারবেন।

Lifi এর ভবিষ্যৎ

আসোলে একবার চিন্তা করে দেখুনতো লাইটের মাধ্যমে যখন আপনি Wifi এর কাজ সেরে ফেলতে পারবেন এবং Wifi এর থেকে অনেক দ্রুত তখন আপনার জীবন কতটা সহজ হয়ে যাবে। হ্যা,বন্ধুরা পরবর্তী যুগের যে ইন্টারনেট সার্ভিস দেওয়া হবে সেটাহলো Lifi এর মাধ্যমে আমি নিচ্চিত করে বলতে পারি যে এই Lifi wifi এর জায়গা দখল করে নিবে।

এবং আপনি লাইটের মাধ্যমে বিভিন্ন জায়গা থেকে ডাটা আদান প্রদান করতে পারবেন। যেটা হবে অত্যান্ত নিখুঁত এবং দ্রুত গতি সম্পর্ণ। এই Lifi আপনারা হাতে পেতে হয়তো বা প্রায় ১০-১২ বছর সময় লাগতে পারে। যেহুত এটা নতুন গবেষণা করে উদ্ভবন করা হয়েছে। তাই এই Lifi ব্যবহার করার জন্য পরবর্তী যে ডিভাইসগুলো রয়েছে স্মার্ট ফোন, লেপটপ,টিভি কিংবা স্মার্ট গাড়ি সেগুলোতে হয়তো Lifi প্রযুক্তি আগে থেকেই ইনিস্ট্রল হয়ে থাকবে।

অর্থাৎ আপনার এই Lifi প্রযুক্তি ব্যবহার জন্য যে ধরণের স্মার্ট ফোন ,টিভি দরকার কিংবা লেপটপ দরকার স্মার্ট ফোন টিভি এবং লেপটপে সে ধরণের প্রযুক্তি আপডেট করা হবে।

Wifi এর পরবর্তী প্রযুক্তি Lifi

তো বন্ধুরা এই ছিল Wifi এবং Lifi এর ভবিষ্যৎ। আজ এতটুকুই দেখা হবে এরকম আরও অজানা সব তথ্য নিয়ে ততক্ষন সুস্থ থাকুন সুন্দর থাকুন। আর হ্যা আমাদের এই পোস্ট যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করবেন এবং লাইক,কমেন্ট করবেন। বন্ধুরা আজ এখানেই বিদায় নিচ্ছি। দেখা আবার আরেকটা নতুন তথ্য নিয়ে। আল্লাহ হাফেজ।
Writing By
Rimon Hossain

Leave a Reply

Your email address will not be published.