September 22, 2021
iPhone 12 Series Bangla Review

iPhone 12 Series Bangla Review । আইফোন ১২ সিরিজের ফোনগুলো কেমন?

iPhone 12 Series Bangla Review

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই। আশা করি সবাই ভালো আছেন। হ্যা বন্ধুরা আমি ও ভালো আছি আপনাদের দোয়ায়। তো বন্ধুরা আজকে আমরা আলোচনা করবো কাঙ্খিত iPhone 12 Series নিয়ে । আমরা আগে থেকেই জানি সারা বিশ্বে রাজ করছে অ্যাপল কোম্পানি। অল্প সময়ের মধ্যে সারা বিশ্বের মানুষের নজর কেড়ে নিয়ে বিশ্ব বাজারে নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করে নিয়েছে। এখন অবস্থান করছে বিশ্বের শীর্ষে থাকা কোম্পনীদের সাথে।
আইফোন যখন প্রথম আসে তখন থেকে আজ পর্যন্ত যত গুলো ফোন বাজারে এনেছে সব গুলোই জনগণের মধ্যে সারা ফেলতে সক্ষম হয়েছে। এবারো তার ব্যতিক্রম নয়। তাছাড়া iPhone 12 Series সিরিজ বেশি জনপ্রিয়। এছাড়াও আইফোন মানেই ভিন্ন কিছু। তাই জনগণ অধীর আগ্রহে বসে থাকে কবে আসবে সেই স্বপ্নের ফোন। তো বন্ধুরা এখন জেনে নেওয়া যাক iPhone 12 Series এ কি কি সুবিধা থাকছে ।

5g logo

নতুন আইফোন ঘোষণার মাধ্যমে ফাইভ জি স্মার্টফোনের জগতে প্রবেশ করলো বিশ্ববিখ্যাত আমেরিকান ব্র্যান্ড অ্যাপল। অ্যাপলের আইফোনের নতুন ভার্সন গুলির নাম হলো আইফোন 12, আইফোন 12 মিনি , আইফোন 12 প্রো এবং আইফোন 12 প্রো ম্যাক্স। প্রতিটি মডেলেই থাকছে ৫জি সুবিধা। আইফোন ১২ সিরিজের এই ফোনগুলো এবার বেশ থিন অর্থাৎ পাতলা করা হয়েছে। ওজনেও হালকা এবং আকারে ছোট। ফোনের সাইড বডি আগের তুলনায় অনেকটাই ‘ফ্ল্যাট’। ফাইভ জি সাপোর্ট ছাড়াও এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ওয়্যারলেস সফটওয়্যার। আর ফাইভ জির কল্যানে ফোনের ডাউনলোড স্পিড পাওয়া যাবে প্রতি সেকেন্ডে ৪ মেগাবাইট পর্যন্ত।

iPhone 12 এর ডিসপ্লের আকার ৬.১” যেখানে ব্যবহার করা হয়েছে OLED প্রযুক্তি স্ক্রিন যেন সহজে ভেঙ্গে না যায়। তার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে টেকসই সিরামিক সিল্ড গ্লাস প্রযুক্তি। এছাড়া এতে রয়েছে A14 বায়োনিক প্রসেসর Apple এর দাবি এই ফোনের CPU এবং GPU অন্যান্য স্মার্টফোনের তুলনায় অনেকটা ফাস্ট। এতে যে ৬ কোড়ের CPU ব্যবহৃত হয়েছে তা অন্য যেকোনো স্মার্টফনের থেকে 50 গুন বেশি গতি সম্পন্ন। পাশাপাশি ফোনের 4 Core GPU থাকছে যা অন্যান্য ফোনের চেয়ে ৫০গুন দ্রুত গতিতে কাজ করবে। সব মডেলের iphone এ ios 14 Software থাকছে এর আগে আই পেড এ আরো ব্যবহৃত A14 Bionic chipset iphone ব্যবহৃত হচ্ছে।

ক্যামেরার বিষয়ে এই ব্রেন্ডটি বরাবরি সন্তুষ্ট করে এসেছে ব্যবহার কারীদের অবশ্য পিক্সেল হিসাব করলে এবার কার ফোন গুলোতে তেমন হাই মেগা পিক্সেল যুক্ত করা হয়নি তবে যুক্ত হয়েছে নতুন প্রযুক্তি 12 মডেলে আছে দুটি ১২মেগা পিক্সেলের wide এঙ্গেল সেন্সর এবং Ultra Wide ক্যামেরা যা কম আলোতেও আপনাকে দেবে ভালো ছবি তোলার অভিজ্ঞতা। এমনকি নাইট মুডে ছবি তোলা যাবে এর ফন্ট ও real ক্যামেরায় এই প্রথম iphone এ নতুন মেগা সেভ চার্জিং স্টান্ডার চালু করেছে। Apple এর সুবিধা হলো এর মেগনেট ও সেন্সর কে কাজে লাগিয়ে ওয়ারলেস চার্জিং এর ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। অর্থাৎ কোনো কেবল ছাড়াই আর অনেক দ্রুত চার্জ হবে iphone 12 . ওয়ারলেস চার্জিং এর ক্ষেত্রে ১৫ ওয়ার্ড এর ওপরে সাপোর্ট করবে।

আরও পড়ুনঃ Samsung Galaxy A সিরিজের ২টি ফোন আনলো স্যামসাং

iPhone 12 Series

iPhone 12 Mini

iPhone 12 Mini

iphone 12 মিনি হচ্ছে আকারে ছোট খাটো এবং ওজনে হালকা একটি ফোন। ফোনটিকে মজমুত করার জন্য সিরামিক ম্যাটেরিয়াল ব্যবহৃত করা হয়েছে এবং এতেও দুইটি Real ক্যামেরা রয়েছে যেখানে নাইট মুড্ ফিউচারটি রয়েছে যথা রীতি Prosesore 12 এর মতোই A14 bionic chipset এছাড়াও রয়েছে Super Retina XDR Display. নাম মিনি বলেই Display তুলনা মূলক ছোট স্ক্রিন এর দৈৰ্ঘ ৫.৪” তবে যারা শুরুর দিকেই ব্রেন্ড টি মিস করেন তারা নিসন্দেহে পছন্দ করবেন। iphone 12 এর মতোও এতে রয়েছে ওয়ারলেস চার্জিং এর সুবিধা সাদা, কালো, লাল,নীল,এবং সবুজ এই পাঁচ টি বাহারী রঙ্গে মিলবে iphone 12 এবং iphone 12 মিনি 64 /128 এবং 256GB এই তিনটি ভেরিয়েন্টে পাওয়া যাবে ফোন গুলো। তবে দেশীও বাজারে সব গুলো কালারি বা জিবির মডেল গুলি ক্রেতারা পাবেন কিনা সে নিচ্ছয়তা দেওয়া যাচ্ছে না এখনি।

iPhone 12 Series

iPhone 12 pro এবং iPhone 12 pro max

iPhone 12 Series Bangla Review

iphone 12 pro এবং iphone 12pro max iphone pro মডেলটি 12 এর মতোই ডিসপ্লে ৬.১” OLED Display নিয়ে তৈরী তবে 12 pro max টি তার থেকেও বেশ খানি বড় এর দৈর্ঘ ৬.৭” Processor হুবহু এক অর্থাৎ A14 Bionic Chipset মোটামোটি বলা যায় । iphone 12 আর Pro version গুলির মধ্যে তেমন কোনো উল্লেখযোগ্য পার্থক্য না থাকলেও প্রত্যেক ক্যামেরা গুলোকে খানিক বারতি গুরুত্ব দিয়েছে Apple .যেমন ফোন দুটির পিছনে রয়েছে তিন ক্যামেরার সেটাপ iphone 12 pro এর পিছনে থাকছে Lider Scenner যাতে কোনো বস্তু স্ক্যানার করা যাবে এবং AR ফিউচার ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া Lider Scenner কম আলোতে Auto ফোকাস ও ক্যাপচার টাইম আরো উন্নত করা হয়েছে। Pro এবং Pro Max উভয় 128/256/512GB মডেলের গ্রাফাইড Silver /Gold ও পেচিফিক Blue এই গুলো রঙে পাওয়া যাবে।
এবার আসবো দাম প্রসঙ্গে আইফোন ১২ মিনির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৯৯ মার্কিন ডলার থেকে। আইফোন ১২ (৬৪ জিবি) এর দাম ধরা হচ্ছে ৭৯৯ মার্কিন ডলার থেকে।

iPhone 12 Series

অন্যদিকে, আইফোন ১২ প্রো (১২৮ জিবি) মডেলটির দাম শুরু ৯৯৯ মার্কিন ডলার থেকে। আর এক হাজার ৯৯ মার্কিন ডলার থেকে শুরু আইফোন ১২ প্রো ম্যাক্সের মূল্য। তবে ফোনগুলোর স্টোরেজ ক্যাপাসিটির ভেরিয়েশন ভেদে অন্যান্য মডেলগুলোর দামে যে যথেষ্ট তফাৎ থাকবে সে বিষয়ে মোটামুটি নিশ্চিত করে বলা যায়।
তো এগুলা দেখে বুঝতেই পারছেন অ্যাপল যত গুলো ফোন বাজারে আনছে প্রত্যেকটা ফোনের ভেরিয়েন্ট প্রায় এক। যদিও বেশি কিছু পরিবর্তন দেখা যায় না। তবুও এই ফোন জনগণের প্রায় আশাই পূরণ করার চেষ্টা করছে এবং সফল ও হচ্ছে বলাই যায়। তো দেখা যাক আইফোন ১৩ কি কি নিয়ে আসে আমাদের মাঝে তত দিন পর্যন্ত আমরা অপেক্ষা করতেই পারি।

আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন ( Flashfilex.com ) এর সাথে । যুক্ত হতে – এখানে ক্লিক করুন

যদি কোনো ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ আপনাকে আর্টিকেলটি পরার জন্য ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন বিদায় নিচ্ছি আজকের মত আল্লাহ্‌ হাফেজ।

এই ছিল আমাদের আজকের iPhone 12 Series  সিরিজের  ফোন নিয়ে আয়োজন আশা করি আপনাদের ভালো লেগেছে। এ রকম আরও ভালো কিছু পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। আর এতক্ষন সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। সেই সাথে আমাদের কন্টেন্ট যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই লাইক ,কমেন্ট এবং শেয়ার করতে ভুলবেন না। আল্লাহ হাফেজ।

Writing By  Shapon Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published.