September 24, 2021
Facebook vs Apple War

ফেসবুকের দিন কি শেষ? – Facebook vs Apple War!

ফেসবুকের দিন কি শেষ? – Facebook vs Apple War!

হ্যালো বন্ধুরা, আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও ভালো আছি। তো বন্ধুরা আমি আজ আপনাদের সাথে এমন একটা তথ্য শেয়ার করতে যাচ্ছি Facebook vs Apple War যা আপনারা উভয়ের সাথেই পরিচিত। আর সেটা হচ্ছে বর্তমান সময়ের যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক আর অন্য দিকে সারা বিশ্বে আলোচিত কোম্পানি অ্যাপল। Facebook vs Apple Warআর এর কারণ হচ্ছে ডেটা। আপনারা জেনে থাকবেন আধুনিক বিশ্বে এখন দেশ ,মাটি নিয়ে যুদ্ধ হয় না এখন যুদ্ধ হয় ডেটা নিয়ে। আর এবার এই যুদ্ধটা বেঁধেছে দুই টেকজায়ান্ট ফেসবুক এবং অ্যাপল এর মধ্যে। যদিও এই দুই কোম্পানির কাজ ভিন্ন।

যেমনঃ আপেল হার্ডওয়্যার,সফটওয়্যার এবং প্রিমিয়াম প্রোডাক্ট সেল করে। আর অন্য দিকে ফেসবুক আমাদের ফ্রীতেই সব কিছু দিয়ে থাকে। তারা আমাদের ads দেখিয়ে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার আয় করছে। আর কিভাবে আজ তারা শত্রুতে পরিণত হয়ে গেলো সেটাই আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি বন্ধুরা।

Facebook vs Apple War

ফেইসবুক (Facebook) Facebook vs Apple War!

Facebook vs Apple War!ফেইসবুক ২০০৪ সালে ৪ঠা ফেব্রুয়ারী প্রতিষ্ঠা হয়। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতার নাম মার্ক জাকারবার্গ। তিনি মূলত এটি তৈরী করেছিলেন বিশ্বে আন্তঃযোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে। এখানে মানুষ তার সব ধরণের তথ্য দিয়ে থাকেন। এখানে মানুষ তার ছবি,মনের ভাব সুন্দর করে সংরক্ষন করে রাখতে পারেন।

বর্তমান সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমের মধ্যে অন্যতম নাম এখন ফেইসবুক। কারন এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলছে। ফেইসবুকের বর্তমান ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২.৭০ বিলিয়ন ২০২০ জুন মাসের হিসাব অনুযায়ী। ২০১৯ হিসাব অনুযায়ী ফেসবুকের আয় US$ ২৩.৯৮৬ বিলিয়ন।

সর্বমোট সম্পত্তি বৃদ্ধি US$ ১৩৩.৩৭৬ বিলিয়ন (২০১৯). এই কোম্পানির অধীনে রয়েছে আরও জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। তার মধ্যে রয়েছে ইন্সট্রাগ্রাম,ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জের,হোয়াটসাপ।

Facebook vs Apple War

 

অ্যাপল (Apple) Facebook vs Apple War!

অ্যাপল কোম্পানি ১৯৭৬ সালে ১লা এপ্রিল প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর প্রতিষ্ঠাতার নাম স্টিভ জবস। তিনি এই কোম্পানি তৈরী করেছিলেন মূলত হার্ডওয়্যার ,সফটওয়্যার এবং প্রিমিয়াম প্রোডাক্ট গুলা বিক্রি করার জন্য। অ্যাপল কোম্পানি বিশেষ করে হার্ডওয়ার এর জন্য বিখ্যাত।
কারণ সারা বিশ্বে এক আলোড়ন করি কোম্পানির নাম অ্যাপল। আর মূলত সেটা সম্ভব হয়েছে এই হার্ডওয়্যার এর জন্য। কারণ ইতিমধ্যে তাদের তৈরী আইফোন সারা বিশ্ব জুড়ে আলোড়ন সৃস্টি করেছে। এটি ২০০৭ সালে প্রথম তৈরী করা হয়। এটির ব্যবহারকারীর সংখ্যা সারা বিশ্বে ২৫০ মিলিয়ন। আর এই থেকে বোঝা যায় আধুনিক বিশ্বে অন্য সব কোম্পানি থেকে অ্যাপল কম জান না।

Facebook

ফেসবুক ও অ্যাপলের দ্বন্দ্বের কারণ?(The cause of the conflict between Facebook and Apple?)

ফেইসবুক আর অ্যাপল কোম্পানির মধ্যে দন্দ্বের অন্যতম কারণ হচ্ছে data privacy নিয়ে। কারণ ফেসবুক ডেটা নিয়ে বিজনেস করে বা খেলা করে আর অন্য দিকে অ্যাপল বলছে আমরা আপনাদের ডেটা কে highest protection দেই। ফলে অ্যাপল আমাদের ডেটা নিয়ে বিজনেস করেও না এবং ডেটা নিয়ে খেলেও না।

কারণ ফেইসবুক,অ্যাপল,গুগল এবং আমাজন এরা সবাই মনোপলি বিজনেস করে। তাই এখানে কাউকে ছোট করে দেখা যাবে না। এখন সমস্যাটা হচ্ছে ডেটা নিয়ে কারন ফেইসবুক বলছে আমরা আমাদের ব্যবহারকারীদের ডেটা নিয়ে বিজনেস করব আর অ্যাপল বলছে ,আপনি অনুমতি ছাড়া ডেটা নিতে পারবেন না।

এখন আপনি ভাবতে পারেন প্রাইভেট ডেটা কি আমার ছবি? আসলে এখানে প্রাইভেট ডেটা বলতে এখানে আপনার ছবি বা ইমেইল কে বুঝাচ্ছে না এর বাহিরেও আপনার অনেক ডেটা আছে যেটা ফেইসবুক আপনার থেকে বিনা অনুমতিতে নিয়ে যাচ্ছে।

অ্যাপল বলছে, আপনার যদি কোন ডেটার প্রয়োজন হয় তাহলে ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। কারন পরবর্তীতে অ্যাপল এর আইওএস ৪৫ ভার্শন আসবে তখন ব্যবহারকারীদের জিজ্ঞেস করবে যে ফেইসবুক আপনার ডেটা ট্রাক করতে চায় আপনি কি দিতে ইচ্ছুক? তখন প্রায়ই বলবে না! কারন ফেইসবুক আপনার ডেটা প্রাইভেসি নিয়ে একদম চিন্তিত না। যা ফেইসবুক এর হিস্ট্রি দেখলে বুঝা যায়।

বর্তমান সারা বিশ্বে আইফোন ব্যবহারকারী আছে ১ বিলিয়ন প্লাস। আর যদি সব ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে যদি অনুমতি নেয়া হয় তো ধারণা করা হচ্ছে যে ৯০% লোকই না করবে ফলে advertisment tracture আছে সেটা পুরো ভেঙে যাবে। কারন ফেইসবুক আমাদের মূলত ads সার্ভ করে।

এখন আপনাদের মনে হতে পারে ,যে ফেইসবুক আমাদের কিভাবে ডেটা নিয়ে যাচ্ছে এবং কোথায় থেকে নিয়ে যাচ্ছে? ফেইসবুক ২ ভাবে আপনার ডেটা নিয়ে যাচ্ছে সেটা হলো::

1) First Party Tracking
2) Third Party Tracking

আরও পড়ুনঃ Top 5 Popular Apps in The World | বিশ্বের শীর্ষ ৫ টি জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশন

First Party Tracking মূলত কোন সমস্যা নেই কারণ First Party Tracking এর জন্য ফেইসবুক আপনার থেকে অনুমতি নেয়। এটা তারা নেয় আপনি যখন আপে লগ ইন করেন তখন কিন্তু আপনি আপে অল পারমিশন করা থাকে। সেখানে আপনি লোকেশন,ক্যামেরা,কন্টাক্ট ,ফোন ইত্যাদি দিয়ে থাকেন। তাছাড়া আপনি প্রোফাইল এ গিয়ে আপনি কি ভালোবাসেন সেটা পোস্ট করলে, আপনি যে পোস্ট এ লাইক কমেন্ট করেন এবং কিছু কেনাকাটা করলে সেখান থেকে ফেইসবুক আপনাকে টার্গেট করে আপনাকে সেই সকল জিনিসের ads আপনাকে দেখানো হয়।

অন্য দিকে Third Party Tracking এইটা কিন্তু ফেইসবুক আপনারদের না জানিয়ে আপনাদের সকল ডেটা ফ্রি তে নিয়ে যাচ্ছে। এটা তারা নিচ্ছে আপনি যখন কোন ই-কমার্স সাইট বা যেকোন সাইটে যান তখন ফেইসবুক পিক্সেল নামক একটা টুল ব্যবহার করে। কারন এই টুল যে যে সাইটে ইনস্টল করা আছে সেখান থেকে অটোমেটিক ডেটা কালেক্ট হয়ে যাচ্ছে।

আপনি কখন কোন পণ্য কিনতে চান সেটার ads ফেইসবুক এ দেখতে পারবেন। এমনকি আপনার পকেটে কখন টাকা থাকে ফেইসবুক কিন্তু সেটাও জানে। আর এভাবেই প্রতিনিয়ত আমাদের ডেটা কালেক্ট করে বিজনেস করছে ফেইসবুক যার কারণে ইতোমধ্যে ডেটা নিয়ে অনেক দেশ মুখ খুলতে শুরু করে দিয়েছে। এমনকি ইউরোপ মহাদেশে ফেসবুক চালানো অনেক ডাউন হয়ে গেছে।

আর এভাবেই চলতে থাকলে একটা সময় ফেসবুক বড় ধরণের ক্ষতির মুখে পরে যাবে যা ফেইসবুক কখনো মেনে নিতে পারবে না তাই তারা এই বিষয়ে প্রথম মুখ খোলা কোম্পানি অ্যাপল এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে। কিন্তু আমার মতে সেটা হবে ফেইসবুক এর জন্য বোকামু। কারণ সারা কোন ব্যক্তিই তার নিজের ডেটা কারো কাছে দিবে না। তাই আমি বলব যে ফেইসবুক এর উচিত একটা মিলের মধ্যে আসা।

তো বন্ধুরা এটাই ছিল আজকের তথ্য ফেসবুকের দিন কি শেষ? – Facebook vs Apple War! আশা করি আপনারা সবাই এটা বুঝতে পেরেছেন। আর হ্যা যদি আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই লাইক,কমেন্ট এবং শেয়ার করবেন। এরপর আমরা আসব এরকম আরোও তথ্য নিয়ে ততক্ষন আমাদের সাথেই থাকুন। আল্লাহ হাফেজ

 

এই ছিল আজকের Facebook vs Apple War নিয়ে ছোট একটি পোস্ট, আশা করি ভালো লেগেছে। এই রকম আরও পোস্ট পেতে চাইলে আমাদের সাথেই থাকুন। পোস্ট যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে, আমাদের পোস্ট গুলি শেয়ার করতে ভুলবেন না।কেমন লেগেছে তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানতে ভুলবেন না যদি কোনো ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ক্ষমা সন্দুর দৃষ্টিতে দেখবেন

ধন্যবাদ আর্টিকেলটি পরার জন্য, ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন আজকের মত আল্লাহ্‌ হাফেজ।

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন আমাদের সাথে। যুক্ত হতে – এখানে ক্লিক করুন

Writing By,
Shapon Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published.